Palazzo in Different Style

পালাজ্জো পরার সব ধরনের স্টাইল যা আপনাকে অবশ্যই জানতে হবে

এর আগের পোষ্টে জামার ওড়না আর কামিজ এর নতুন নতুন কাট নিয়ে আলোচনা করেছি আজ বলব পালাজ্জো নিয়ে। পালাজ্জো নরমালি যখন প্রথম পরার প্রচলন হয় তখন অয়েস্টার্ন আউটফিটের সাথেই পরত সবাই।



এখন এই পালাজ্জো পাজামার মত প্রায় সব কিছুর সাথেই পরছে সব মেয়েরা। আরাম আর ফ্যাশনেবল দুটো মিলিয়েই দারুন একটি পোশাক এটি।
যদিওবা ৬০/৭০ দশকে এই পালাজ্জো প্যান্ট

দারুন জনপ্রিয় ছিল, এখন কয়েক বছর ধরে আবারো ফ্যাশনেবল সব মেয়েরা এই পালাজ্জো নতুন করে পরছে। শুধু পরছেই না, বিভিন্ন ঢং এ রঙ এ, বৈচিত্রে নানান ভাবে পরছে এই প্যান্ট।



যেকোনো মেয়ের ওয়ারড্রব এর খুব দরকারি আর প্রিয় একটি পোশাক স্থান করে নিয়েছে এই পালাজ্জো প্যান্ট ,কেননা এটি যেমন আরাম, স্টাইলিশ, তেমনি দারুন ভার্সেটাইল, বিভিন্ন উপায়ে বিভিন্ন রকম ভাবে একে পরা যায় প্রায় সব জায়গাতেই সেটা ফর্মাল হোক, বা ইনফর্মাল, অয়েস্টার্ন হোক বা ইন্ডিয়ান, বা বাঙ্গালিয়ানায় ও।

পালাজ্জো প্যান্ট এর নানান স্টাইল
আজকের লেখায় আমি তুলে ধরব পালাজ্জো প্যান্ট পরার নানান স্টাইল।

লং কুর্তার সাথে
লং জামা বা কুর্তা বা পাঞ্জাবির সাথে পালাজ্জো মিলিয়ে পড়ে ফেলুন, ব্যাস হয়ে গেলো দারুন একটি লুক।


যদিও লং কুর্তা বা জামার সাথে আমরা ল্যাগিংস বা চুড়িদার দিয়ে পরি আরামদায়ক আর স্টাইলিশ বলে, কিন্তু কোনো কিছুই পালাজ্জোর মত এত আরাম আর স্টাইলিশ এ তুলনাযোগ্য না 🙂 ।


আপনার সম্পুর্ন সাজ পরিপুর্ন করতে একজোড়া বড় কানের দুল সাথে হাই হিল পড়ে নিন, এতেই দেখুন দারুন একটি সিম্পল কিন্তু মারাত্ত্বক দারুন সৌন্দর্য ফুটে উঠেছে।

আনারকলির সাথে
আনারকলি জামার সাথে পালাজ্জো প্যান্ট হচ্ছে সবচেয়ে পারফেক্ট যেকোনো স্পেশাল অনুষ্ঠানের জন্য, বিশেষ করে বিয়ের অনুষ্ঠান, পারিবারিক যেকোনো বড় অনুষ্ঠান বা বিয়ে পুর্ববর্তী যেকোনো প্রোগ্রামেও।


আপনি আপনার আনারকলির সাথে পালাজ্জো প্যান্ট পরে সুন্দর নতুন সাজে নিজেকে পরিপাটি করে তৈরি করে নিন যেকোনো পার্টির জন্য।

এই সাজের সাথে আপনি বড় কানের দুল বা ঝুমকা টাইপ কিছু মিলিয়ে পরে নিন, সবচেয়ে গুরুত্বপুর্ন হচ্ছে পায়ের স্যান্ডেল, অবশ্যই হিল পরবেন পালাজ্জোর সাথে। আনি যদি হাই হিলে কম্ফোর্ট ফিল না করেন তবে কিটেন হিলস বা অল্প হিল হলেও পরে নিন।

জ্যাকেট টাইপ জামার সাথে
পালাজ্জো প্যান্ট কোটির সাথে বা জ্যাকেট সিস্টেম কুর্তার সাথেও দারুন ভাবে মিলে যায়।


এই প্যান্ট টি যেমন লং কামিজ বা সিম্পল যেকোন কামিজের সাথে মিলে যায় তেমনি লং বা শর্ট কোটি দিয়েওবা চোলি সিস্টেম এর যে্কোনো কামিজের সাথেও দারুন ভাবে মানিয়ে যায়।

কামিজের সাথে
আপনার যদি মনে হয় পালাজ্জো লং কামিজের সাথে পরলে খুব ক্যাজুয়াল হয়ে যায়, বা আনারকলির সাথে পরলে খুব বেশি ফরমাল বা ভারি লুক এসে যায় যেকোণ পারিবারিক গেট টুগেদার বা যেকোন ঘরোয়া অনুষ্ঠানে তাহলে সিম্পল জামার সাথে বা কামিজের সাথে সালোয়ার কামিজের মত করে পালাজ্জো পরে ফেলুন কামিজ বা জামার সাথে মিলিয়ে নরমাল সালোয়ার বা চুরিদারের পরিবর্তে।



টপস এর সাথে
এখন স্কার্ট এর চেয়ে পালাজ্জোর সাথেই দারুন ভাবে পরা যায় টপস। এখন কার সময়ে টিন এজ থেকে শুরু করে সব ধরনের মেয়েরা আরামের জন্য টপস এর সাথে দারুন ভাবে পরে নিচ্ছে এই পালাজ্জো।

দারুন টিপটপ , ফরমাল এবং স্টাইলিশ একটা লুকের জন্য এই কম্বিনেশন টি চমৎকার।

পালাজ্জো প্যান্ট এর বিভিন্ন প্যাটার্ণ আর কালার
এখন শপিং মল গুলোতে বিভিন্ন ধরনের পালাজ্জো পাওয়া যায়। এক কালার বা প্রিন্ট, ফ্লোরাল বা চেক… সব ধরনের পালাজ্জো এখন এভেইলেবল।


একটু বেশি ঘের অয়ালা যেমন পাওয়া যাচ্ছে, তেমনি অনেকের কম ঘের পছন্দ, তাদের জন্য ও আছে কম ঘেরের পালাজ্জো।


একেবারে স্কার্ট এর মত ও অনেক পালাজ্জো এখন পাওয়া যায়, যা ইদানিং বেশ জনপ্রিয়।
এর ম্যাটেরিয়াল এও আছে দারুন ভিন্নতা, জর্জেট থেকে শুরু করে, ক্রেপ, সুতি, লিনেন সব ধরনের পালাজ্জো এখন পাওয়া যাচ্ছে।

সঠিক পালাজ্জো বেঁছে নিতে কয়েকটি টিপস

১) কোন ফেব্রিক টা আপনার জন্য আরামদায়ক সেটা আগে বেঁছে নিন। সুতিতে , লিনেন এ নাকি জর্জেট বা ক্রিংকেল এ আপনি বেশি আরামদায়ক।

২)পালাজ্জোর কাপড় সিলেক্ট করার পর, খুব বেশি অপশন না থাকলে আপনি ফ্লোরাল প্রিন্টের পালাজ্জো বেঁছে নিন, কারন এটি ভীষণ ইউনিভার্সাল, প্রায় সব কিছুর সাথে এটি মানিয়ে যাবে।


৩) সঠিক কোমরের স্টাইল টাও অনেক গুরত্ত্বপুর্ন। আপনি যদি নরমাল কামিজ এর সাথে পালাজ্জো পরতে চান তবে লো ওয়েস্ট এর স্টাইল টি বেঁছে নিন, আর যদি অয়েস্টার্ন আউটফিটের সাথে পরতে চান তবে একটু হাই ওয়েস্ট বেঁছে নিন।


৪) জুয়েলারি পালাজ্জোর স্টাইল্কে আরো অনেকাংশে বাড়িয়ে দেয়।
কন্ট্রাস্ট করে বা ম্যাচিং যেভাবেই পরুন হাল্কা পাতলা জুয়েলারিতে বেশ ভালো লাগে।

৫) কালার চয়েস এর ক্ষেত্রে আমি বলব, একটু সাবল বা মাইল্ড রঙের বা হাল্কা যেকোনো রঙের পালাজ্জোই আপনার সংগ্রহে বেশি রাখবেন।

৬) পালাজ্জোর সাথে চেষ্টা করবেন সব সময় হিল পরতে, যদিনা আপনি ফ্ল্যাট ছাড়া পরতে না পারেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top
6 Shares
Tweet
Share
Pin
Share