skin care routine

বয়স যখন ৩০, ত্বকের জন্য যা যা করবেন

“বয়স কোনো ব্যাপার না, মনের তারন্যই প্রধান” এই কথা যতই বলি না কেনো, বয়স বাড়ার সাথে সাথে আমাদের ত্বকের আলাদা কিছু যত্ন করতেই হয়। সময়ের সাথে সাথে ত্বকে বলিরেখা পরা থেকে ত্বক কুচকে যাওয়া বা বয়সের ছাপ এগুলো থেকে কিছু টা রেহাই পেতে আগে থেকে স্কিন কেয়ারে কিছু চেঞ্জ আনতেই হয়।
বয়সের চিন্তা না করে জীবঙ্কে উপভোগ করা, বা মনের প্রফুল্লতার সাথে তারুন্য ধরে রাখা বা মানসিক তারুন্য ধরে রাখা যেমন সত্য তেমনি সামান্য একটু রুটিন চেঞ্জ এ বা কিছু জিনিস ফলো করলে বার্ধক্যের ছাপ বা মেছতা, বলিরেখা সহ শারীরিক তারুন্য ও ধরে রাখা যায়।

আমি নিজের জন্যই এই বিষয়ে অনেক ঘাঁটছিলাম, পরে যা কিছু শিখলাম, বা জানলাম তার মেইন জিনিস গুলো এখানে লিখে রাখলাম।

প্রচুর পানি পান
স্বাস্থ্যকর ত্বকের জন্য প্রচুর পানি পানের বিকল্প নেই, বিশেষজ্ঞ দের মতে বয়স বাড়ার সাথে সাথে আমাদের চুল বা ত্বকের জন্য প্রচুর পানি পান করতে হবে।

ন্যাচারাল মুখের মাস্ক ব্যাবহার
সপ্তাহে একদিন বা দুদিন সময় করে ফেসিয়াল মাস্ক লাগাতে পারেন, সেটা চন্দন, মুলতানি বা উপ্টান ও হতে পারে। বেশি ভালো হয় হার্বাল হলে।
আমি এজটেক ক্লে মধু দিয়ে এলোভেরা জেল দিয়ে বা কখনো রোজ অয়াটার দিয়ে গুলে মুখে দিয়ে গোসল দিয়ে নি ই সপ্তাহে একবার।

স্ক্রাবিং
মুখের ডেড সেল বা ভালো ভাবে ক্লিনজিং এর জন্য সপ্তাহে একবার স্ক্রাব লাগানো ভালো। ঘরোয়া উপায়েই করে নেয়া যায়, চিনি, লেবু বা মধু দিয়ে, বা চালের গুড়া আর মধু দিয়েও ঘরেই স্ক্রাবিং করা যায়।

যোগব্যায়াম বা ইয়োগা
বয়স ৩০ ছুই ছুই বা ৩০ এর পর রেগুলার ব্যায়াম করা উচিত সবার, যোগব্যায়াম এ মন ও শরীর দুটোই বেশ প্রফুল্ল থাকে।

সানস্ক্রিন ব্যাবহার করা
বাইরে বেরুনোর আগে অবশ্যই সানব্লক বা সানস্ক্রিন দিয়ে তবেই বের হবেন। সানস্ক্রিন ছাড়া বাইরে বেরুলে সুর্যের আল্টড়া ভায়োলেট রশ্মির জন্য স্কিনে কালচে ভাব বা বলিরেখা পরে ।

ময়েশ্চারাইজার লাগান
রাতে শোবার আগে অবশ্যই ময়েশ্চারাইজার লাগাতে হবে।

সারাদিনের টিপস
১) যদি আপনার ড্রাই স্কিন হয়ে থাকে তবে ক্রিম ক্লিঞ্জার দিয়ে মুখ ধোবেন। আর যদি অয়েলি স্কিন হয় তবে ফোমিং ক্লিঞ্জার ইউজ করবেন।

২) যেকোন ভালো একটা সেরাম ইউজ করা ভালো। আমি অলে র সেরাম টা ইউজ করতাম, এখন অরেঞ্জ অয়েল টা ইউজ করে বেশ আরাম পাচ্ছি।
৩) মুখ ধোয়ার পর একটা ভালো তোনার ইউজ করলে ভালো, এর পর ময়েশ্চারাইজার ব্যাবহার করবেন অবশ্যই।

৪)সপ্তাহে একদিন একটা প্যাক লাগাতে পারেন, মুখে পিম্পলের দাগ থাকলে এজটেক ক্লে এর মাস্ক টা দিতে পারেন।
৫) চোখের নিচে দাগ থাকলে একটা আই ক্রিম লাগাতে হবে রাতে।




Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top
0 Shares
Tweet
Share
Pin
Share