mistakes in wearing saree

শাড়িতে যে ভুল গুলো এড়িয়ে চলবেন

শাড়ি আমাদের সবার প্রিয় পোশাক, যেকোনো অনুষ্ঠান বা উৎসব পার্বন ছাড়াও অনেকেই আমরা রেগুলার শাড়ি পরি। এই শাড়ি পরার সময় টুকটাক কিছু জিনিস খেয়াল রাখতেই হয়, নতুবা সব সৌন্দর্য ই ভেস্তে যায় অনেক সময়।

শাড়ি অরার সময় যে বিষয় গুলোর দিকে একটু মনোযোগ দিবেন তা নিচে দেয়া হলঃ

শাড়ি খুব বেশি উপর বা নিচে পরা ঠিক নয়: 
আমরা অনেকেই মাঝে মাঝে বেশি নিচু করে বা অনেক সময় উচু করে ফেলি শাড়ি, এতে খুব খাপ ছাড়া লাগবে আপনার কুচি বা পা।
শাড়ি পরার সময় এই বিষয়টা একটু মাথায় রাখতে হবে । শাড়ি নাভির ঠিক নিচ থেকে পরা উচিত এবং আঁচল থাকবে কাঁধের মাঝ বরাবর।

ব্লাউজের ভুল মাপ: 
খুব বেশি আঁটসাঁট বা ঢিলেঢালা ব্লাউজ পরা ঠিক নয় এতে দেখতে খারাপ লাগে। যদি খুব বেশি কাজ করা যেমন- সিল্কের শাড়ি পরেন তাহলে অবশ্যই আঁটসাঁট বা বেশি ঢিলা ব্লাউজ পরবেন না। সঠিক মাপের ব্লাউজ দিয়ে শাড়ি পরা হলে দেখতে সুন্দর লাগে ও আভিজাত্য বজায় থাকে ।

সঠিক পেটিকোট: 
শাড়ি পরার সময় অবশ্যই সঠিক রং ও সঠিক মাপের পেটিকোট পরতে হবে। পেটিকোট লম্বায় ছোট হলে পা দেখা যাবে আবার বেশি লম্বা হলে শাড়ির নিচ থেকে পাটিকোট দেখা যাবে। অর্থাৎ দুটাই সমস্যার সৃষ্টি করে। শাড়ি পাতলা যেমন- নেটের শাড়ি হলে এর সঙ্গে রং মিলিয়ে পেটিকোট পরা উচিত।

খুব কম কুচি বা অতিরিক্ত কুঁচি: 
শাড়িতে মাঝখানে অনেক বেশি কুঁচি থাকলে দেখতে খারাপ দেখায় এবং অধিকাংশ নারীই এই ভুল করেন। শাড়ি পরার ক্ষেত্রে ছয়-সাতটি কুঁচি হল আদর্শ। কুঁচি তৈরিতে খুব একটা দক্ষ না হলে সেলাই করা  কুঁচি শাড়ি ব্যবহার করতে পারেন। এতে সময় ও শ্রম বাঁচবে আর দেখতেও ভালো লাগবে।

সঠিক জুতা পরা: 
শাড়ির সঙ্গে ফ্ল্যাট জুতা পরলে দেখতে খুব একটা ভালো লাগে না। উঁচু জুতাতে শাড়ির কুচি দেখতে সুন্দর লাগে। তাই শাড়ির সঙ্গে নিজের পছন্দসই উঁচু জুতা পরুন।

ভারি জুয়েলারি এড়িয়ে চলুন : 
আমরা অনেকেই শাড়ি পরলে গা ভর্তি গয়না পরে ফেলি। ফলে আপনাকে গয়নার দোকান ছাড়া আর কিছুই মনে হবে না। শাড়িতে যদি হেভি এমব্রয়ডারি বা বেশি কাজ থাকে তাহলে যতটা পারবেন অল্প গয়না পরার চেষ্টা করুন।

বেশি এক্সপেরিমেন্ট করবেন না : 
যদি কোনো জমকালো অনুষ্ঠানে বা পার্টিতে যেতে হয় তবে খুব এক্সপেরিমেন্ট এ না যাওয়াই ভালো।
অনেক রকমভাবেই শাড়ি পরা যায় ঠিকই‚ কিন্তু যেভাবে আপনি শাড়ি পরতে অভ্যস্ত সেই ভাবেই পরুন।

অনুষ্ঠান বুঝে সঠিক শাড়ি নির্বাচন করুন : 
এই ভুল আমরা মাঝেই মাঝেই করে থাকি । অনেক শাড়ির মধ্যে আমাদের কিছু প্রিয় শাড়ি থাকে এবং আমরা যে কোন উপলক্ষে ওই শাড়িগুলো পরে ফেলি। যেমন ধরুন ফর্মাল কোন অনুষ্ঠানে ভারি কাজ করা শাড়ি না পরাই ভালো। আবার অফিস পার্টিতে নেটের সি থ্রু শাড়ি একেবারেই না পরার চেস্টা করবেন।

খুব বেশি সেফটি পিন লাগাবেন না : 
অনেকেই শাড়ি পরতে অভ্যস্ত নন‚ ফলে শাড়ি ম্যানেজ করা তাদের পক্ষে একটু অসুবিধার বিষয় হয়ে দাঁড়ায়। নিরুপায় হয়ে তাই চারিদিকে সেফটি পিন লাগিয়ে শাড়ি ম্যানেজ করার চেষ্টা করে অনেক আপুরাই। এটা না করাই ভালো‚ আর যদি একাধিক পিন লাগান তাহলে লক্ষ রাখবেন তা যেন শাড়ির ফাঁকে লুকোনো থাকে। বাইরের দিকে করে পিন লাগাবেন না‚ খুবই দৃষ্টিকটু লাগে।


লেখাটি যদি প্রয়োজনিয় মনে হয় নির্দিধায় শেয়ার করে ফেলুন 🙂

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top
0 Shares
Tweet
Share
Pin
Share