saree with belt

নতুন স্টাইল শাড়ির সাথে বেল্ট কম্বোঃ ট্রাই করেই দেখুন একবার

আর কিছুদিন পরেই পূজা, নিশ্চয় ই কেনাকাটা শুরু করে দিয়েছেন? আর এই কেনাকাটায় মেয়েদের অন্যতম অনুষঙ্গ হচ্ছে শাড়ি।
শাড়ি ছাড়া পূজা বা যেকোনো অনুষ্ঠান বা উৎসব কল্পনাই করা যায় না। শাড়ি বাদ দিয়ে শপিং হয়? একটা দুর্দান্ত শাড়ি , সাথে দারুন ব্লাউজ আর মেক আপ… ব্যাস আর কি চাই?
হ্যা চাই… একটু বেশি নজর কাড়তে হলে আরেকটু ফ্যাশনিস্তা হতেই হয়।
এই পুজার ভীরে নিজেকে একটু অন্যভাবে সাজাতে হলে, একটু নজরকাড়া ভাবে দেখাতে চাইলে সাজে একটু ভিন্নতা আনতেই হবে।

এই বছর শাড়ির সাথে বেল্ট বাঁধার একটা ট্রেন্ড দারুন চলছে। কি অবাক বা বিরক্ত হচ্ছেন? ভাবছেন শাড়িও পরব তার সাথে আবার কিসের বেল্ট? জ্বী হ্যা এই বেল্ট এর স্টাইল্টি মোটেও খারাপ লাগছেনা, বরং শাড়ির সাথে এই বেল্ট নতুন ঢং আপনার সৌন্দর্য বহুগুণে বাড়িয়ে দিচ্ছে।
তাহলে আর ভাবছেন কি? এখুনি কেনাকাটার লিস্টে আপনার শাড়ির সাথে বেল্ট এর অনুষঙ্গ এড করে নিন।
এই বেল্ট এর স্টাইল নিয়ে আজ কিছু টিপস শেয়ার করলাম, চলুন দেখি কি কি..

১) কোন ধরনের শাড়ি পরছেন সেটি অনেক গুরত্ত্বপুর্ন, কারন শফন এ রঙা না কাতান, নাকি প্রিন্টের . এটা আগে নির্ধারন করা জরুরি। বেল্ট এর জন্য শাড়ি যাতে নষ্ট না হয়ে যায় সেটা আগে দেখতে হবে।



.২) শাড়ি বাছা হয়ে গিয়েছে? শাড়ি বাছা হয়ে গেলেই এবার বেল্ট বাছার পালা। বেল্ট সরু পরবেন নাকি মোটা পরবেন, এর উপর অনেকটাই আপনার স্টাইল নির্ভর করছে।
শাড়িতে যদি খুব বেশি কাজ থাকে, যেমন হেভি এম্ব্রইডারড বা জংলা প্রিন্ট তাহলে চিকন বেল্ট না পরে মোটা বেল্ট বাছুন, কারুন খুব সরু বেল্ট হলে শাড়ির কাজের ভিতরে বেল্ট ম্লান হয়ে যাবে।

আবার এক রঙা শিফন বা মসলিনের শাড়ি হলে সরু বেল্ট বেছে নিতে পারেন।



৩) শাড়ির সঙ্গে আলাদা করে বেল্ট পরতে না চাইলে ব্লাউজের সঙ্গেই এক সাথে জুড়ে দিন। ব্লাউজের সামনে দিকটা বোতাম বা হুক সহ একটু লম্বা করবেন, সেটা বেল্টের মতো হয়ে যাবে। যখন শাড়ি পরবেন ব্লাউজের উপর দিয়ে আঁচল ফেলে দেবেন এবং বোতাম আটকে দেবেন। 





৪) শাড়ি আর বেল্ট নিত্যদিনের স্টাইল না, এটি একটি বিশেষ ধরনের স্টাইলিং, এটি সব ধরনের অনুষ্ঠানে, সব জায়গায় ক্যারি করা যায় না। তাই অতিরিক্ত টাকা বেল্টের পিছনে খরচ করতে যাবেন না, যেটা পূজা বা ঈদের পর অথবা অনুষ্ঠানের পর আলমারিতে পরে থাকবে।

৫) শাড়ির সাথে বেল্ট পরলে খুব সাব্ধানতার সাথে মেকআপ বা অর্নামেন্ট বেছে নিবেন। এমন ভাবে মেকআপ করা উচিত নয় যেটা এই লুক্টাকে ম্লান করে দেয়। খুব সিম্পল নো মেকআপ লুক বা ন্যুড মেকআপ ও করা যায়।
আর এক্সেসরিজ এ সিম্পল ইয়ার রিং হলেই চলবে।
এমন কোনো নেকপিস বা ইয়ার রিং পরা উচিত নয় যেটা এই শাড়ি বেল্ট কম্বোকে ছাপিয়ে না যায়।


যেমন এই ছবিটিতে কারিশার মেকআপ দেখুন, এমন ভাবে মেকআপ করেছে খুব জবরজং লাগছেনা, আর অর্নামেন্ট ও তেমন কিছুই পরেন নি। ভালো লাগছেনা?

সবার নজরে থাকবে আপনার বেল্ট এর কম্বো তাহলে। 🙂

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top
0 Shares
Tweet
Share
Pin
Share